মাধবদীতে মোমবাতি প্রজ্বলনের মাধ্যমে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের শ্রদ্ধা নিবেদন

মোঃ আল আমিন, মাধবদী, নরসিংদী প্রতিনিধি:
শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে মোমবাতি প্রজ্বলনের মাধ্যমে ৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর পাক হানাদার ও তাদের দোসরদের হাতে শাহাদত বরণকারী শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়েছে। মাধবদী পৌরসভা ও মাধবদী থানা প্রশাসনের যৌথ আয়োজনে ও মাধবদী পৌর এলাকার বিভিন্নস্তরের মানুষের সহযোগিতায় মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৬ টা ০১ মিনিটে মাধবদী পৌর সভা মোড়ে এ শ্রদ্ধা জানানো হয়।
পৌর মেয়র ও মাধবদী শহর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজ্বী মোঃ মোশাররফ হোসেন প্রধান মানিকের নেতৃত্বে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পুরো পৌর এলাকায় দু’মিনিট বিদ্যুৎ বন্ধ রেখে মাধবদী পৌরসভা মোড়ে মাধবদী পৌর সভার কর্মকর্তা-কর্মচারী, মাধবদী থানা প্রশাসন, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী ব্যক্তিরা একত্রে এই মোমবাতি প্রজ্বলন করে এসময় শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালনের মধ্য দিয়ে এই শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
পরে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাধবদী পৌর মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিক বলেন, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের পুরো সময়টুকুতেই পাকিস্তানি হানাদারবাহিনী কর্তৃক পরিকল্পিতভাবে বাংলাদেশের জ্ঞানী-গুণী ও মুক্তবুদ্ধিসম্পন্ন মানুষদের হত্যা করা হয়েছে। স্বাধীনতা যুদ্ধের শেষ পর্যায়ে এসে পাকিস্তানি বাহিনী যখন বুঝতে শুরু করে যে তাদের পক্ষে যুদ্ধে জেতা সম্ভব না, তখন তারা নবগঠিত দেশকে সাংস্কৃতিক, সামাজিক ও শিক্ষাগত দিক থেকে দুর্বল এবং পঙ্গু করে দেয়ার জন্য নীল নকশা তৈরি করতে থাকে। সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী ১৪ ডিসেম্বর রাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী তাদের দেশীয় দোসর রাজাকার, আলবদর ও আল শামছ বাহিনীর সহায়তায় দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তানদের নিজ নিজ গৃহ হতে তুলে এনে নির্মম নির্যাতনের পর হত্যা করে। তিনি আরও বলেন, দীর্ঘ ৯ মাস যুদ্ধের পর লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে এদেশ আমরা পেয়েছি। দেশে এখনো স্বাধীনতা বিরোধীরা সক্রিয়ভাবে ষড়যন্ত্র করে আসছে। তাদের কোন অবস্থাতেই মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে দেয়া যাবে না।
তিনি আরও বলেন, শহীদ বুদ্ধিজীবীদের রেখে যাওয়া পথেই বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে বঙ্গবন্ধুর কন্যা, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দুজ্জামান বলেন, বিজয় সুনিশ্চিত জেনে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী বাঙ্গালি জাতিকে মেধাশূণ্য করার লক্ষ্যে দেশ বরেণ্য বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করে। বাংলাদেশ যেন কোনদিনই মাথা তুলে দাঁড়াতে না পারে, এজন্য এই ঘৃন্য হত্যাকান্ড চালায়।মোমবাতি প্রজ্বলনকালে উপস্থিত ছিলেন মাধবদী শহর আওয়ামীলীগ সহ আওয়ামীলীগের সহযোগী অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ, মাধবদী পৌরসভার কাউন্সিলর বৃন্দ, পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারী বৃন্দ সহ মাধবদী থানার কর্মকর্তা এলাকার বিভিন্নস্তরের মানুষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *