আজ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মাধবদীতে জুয়া খেলায় বাঁধা দেয়ায় রড দিয়ে পিটিয়ে স্ত্রীকে হত্যা করলো পাষান্ড স্বামী

মোঃ আল আমিন, মাধবদী (নরসিংদী) প্রতিনিধি:
স্বামীকে জুয়া খেলায় বাঁধা দেয়ায় গৃহবধুকে রড দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে পাষন্ড স্বামী। হত্যার পর বাড়ির অদূরে একটি ইটভাটার পাশে মরদেহ ফেলে রাখা হয়। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল ৮ ফেব্রুয়ারী দিবাগত রাতে নরসিংদীর মাধবদী থানার বালুসাইর গ্রামে। নিহত আছিয়া(২৮) মাধবদীর বালুসাইর গ্রামের ফজর আলী স্ত্রী। সে মাধবদীর একটি কারখানায় শ্রমিকের কাজ করতো। স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে পরদিন ৯ ফেব্রুয়ারী বুধবার সকাল সাড়ে ৯ টায় স্থানীয় লোকজন সেই পথে চলাচল করতে গিয়ে ইটভাটার পাশে এক মহিলার মরদেহ মাটিতে পড়ে থাকতে দেখে মাধবদী থানায় খবর দেয় পরে থানার এস আই জাহিদ তার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে। নিহতের স্বজনরা জানায়, নিহত আছিয়া প্রতিদিনের মতো তার কর্মস্থল থেকে কাজ শেষে রাতে বাড়ি ফেরেন। বাড়ি ফেরার পর জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে নিহতের স্বামী জোহর আলীর সাথে তার বাকবিতন্ডা শুরু হয়। বাগবিতন্ডার এক পর্যায়ে স্বামী উত্তেজিত হয়ে আছিয়াকে মারপিট শুরু করেন। পরে লোহার রড দিয়ে তার মাথায় এলোপাথারী আঘাত করতে থাকে। এতে তার মাথা দ্বিখন্ডিত হয়ে মস্তক বেড়িয়ে যায়। ফলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এসময় তার সন্তানরা তাদের বাবাকে বাঁধা দিতে এলে তাদেরকেও পিটাতে আসে। পরে গভীর রাতে নিহতের মরদেহ স্থানীয় বালুসাইরের পরিত্যক্ত সানি ইট ভাটার পাশের জমিতে ফেলে দেয়। পরে সকালে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করেন। ঘটনার পরই পাষন্ড স্বামী পলিয়ে গেছে। নিহত আছিয়ার ৩ সন্তান রয়েছে। নিহতের ছেলে রাজিব জানান, রাতে মা বাবার মধ্যে প্রচন্ড ঝগড়া হয়। ওই সময় রড দিয়ে মাকে পিটিয়ে মারে। মাধবদী থানার ওসি সৈয়দুজ্জামান এ ঘটনায় জানান, নিহতের স্বামী কোন কাজকর্ম করতো না। সারাদিন জুয়ার আড্ডায় মেতে থাকতো। এনিয়ে তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ ছিলো। এরই জের ধরে এই হত্যাকান্ড সংঘঠিত হয়েছে বলে প্রাথমিক তথ্য পেয়েছি। ঘটনার তদন্ত চলছে এবং মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category