আজ ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৬শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কিশোরগঞ্জে ‘আদালতের নিষেধ অমান্য’ বর্গাচাষীর পেশী শক্তির নিকট অসহায় জমির মালিক

নিজস্ব প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার মাইজখাপন ইউনিয়নের চৌধুরীহাটি গ্রামে জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের আদেশ অমান্য করে ও পেশী শক্তির দাপট দেখিয়ে জমির অবৈধ দখল ছাড়ছেনা বর্গাচাষী বুলবুল আহম্মদ গং এমন অভিযোগ স্থানীয় এলাকাবাসী ও জমি মালিক কবীর বকুলের।

সরেজমিনে গিয়ে দখলদারের প্রতিবেশী মৃত মুকসেদ আলীর পুত্র অটো চালক মোঃ বাবুল মিয়া ও মৃত মৌলানা আঃ রাজ্জাকের পুত্র মোঃ বকুল মিয়া’সহ স্থানীয় আরো ৪-৫ জন এলাকাবাসীর মতামত ও অভিযোগ কারীর কাগজ-পত্র দেখে স্পষ্ট বুঝাযায় দখলকারীরা পেশী শক্তি ও তাদের দুই ভাই (সেনা বাহিনী ও পুলিশ সদস্য) হওয়ায় অদৃশ্য শক্তির কাছে অসহায় নিরীহ এলাকাবাসী ও জমির মালিক।

অথচ এ বিষয়ে জমির মালিক মোঃ কবীর বকুল বাদী হয়ে গত ১০/১১/২০ ইং তারিখে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় এবং জমির ফসল ভোগ করার জন্য আবেদন করলে, আদালত শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য সদর থানা পুলিশকে নির্দেশ এবং সদর এসিলেন্ডকে দখলীয় প্রতিবেদন তলব করেন।

থানা পুলিশ নালিশি জমিতে উপস্থিত হয়ে আদালতের নির্দেশে উভয় পক্ষকে জমিতে না আসার নির্দেশ প্রদান করেন।
কিন্তু এ আদেশ অমান্য করে অবৈধ দখলদার জমির সম্পুর্ন ধান কেটে নিয়েযায়।
এরিমধ্যে দখলীয় প্রতিবেদনও জমা হয় আদালতে, তাতেও বলা হয় প্রথম পক্ষই জমির প্রকৃত মালিক ও দ্বিতীয় পক্ষ গত চার মাস যাবৎ বর্গাচাষী।

জমির মালিক কবীর বকুল জানান, আদালতের নির্দেশ ও দখলীয় প্রতিবেদন তাদের হাতে আসার পরও জমিতে তারা আবার হাল চাষ করে খেলাই (ডাল) বপন করেছে। আমি স্থানীয় প্রতিনিধি সহ কারোর কোন সাড়া/সহযোগীতা না পেয়ে আমরা মজলুম/অসহায় অবস্থায় রয়েছি।

এ ব্যাপারে স্থানীয় প্রতিনিধি মাইজখাপন ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ রুকন উদ্দিন ও ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার মুকুল মিয়ার সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তারাও ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমাদের জানামতে ও কাগজপত্র দেখে আমরা যতটুকু বুঝতে পারলাম তাতে মোঃ কবীর বকুলেই জমির প্রকৃত মালিক। আমরা তাদেরকে বুঝিয়েছি বলেছি কিন্তু তারা যদি আমাদের কথা না শুনে তাহলেতো আমরা তাদের বিরুদ্ধে লাঠি ধরতে পারবোনা। তাছাড়া তারা খুবই শক্তিশালী এবং তাদের দুই ভাই আছে পুলিশ ও আর্মিতে, তাদের অদৃশ্য ক্ষমতাবলেই আজ বকুলের জমি দখল করে রেখেছে তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category