আজ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কিশোরগঞ্জে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে হত্যা, স্বামীসহ তিনজনের ফাঁসি

নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে যৌতুক না পেয়ে গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা মামলায় স্বামীসহ তিনজনকে ফাঁসির রায় দিয়েছে আদালত।

১৫ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টার দিকে নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইবুনাল -১ এর বিচারক মুহাম্মদ হাবিবুল্লাহ এ রায় ঘোষণা করেন। এছাড়াও খোকন মিয়াকে ৫০ হাজার, জালাল মিয়াকে ত্রিশ হাজার ও জরিনা খাতুনকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, ৩৭ বছর বয়সী স্বামী খোকন মিয়া, তার ৩৯ বছর বয়সী বোন জরিনা খাতুন ও আত্মীয় ৪৩ বছর বয়সী জালাল মিয়া। তারা সবাই করিমগঞ্জ উপজেলার গুজাদিয়া এলাকার বাসিন্দা।
রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. আফজাল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ১৬ বছর পূর্বে করিমগঞ্জ উপজেলার গুজাদিয়া ইউনিয়নের খৈলাকুরী গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল কুদ্দুসের মেয়ে হেনা আক্তারের সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয় একই ইউনিয়নের বন্ধগোমরা এলাকার বাসিন্দা ইমান আলীর ছেলে খোকনের। বিয়ের পর থেকেই হেনার উপর স্বামী খোকনসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা যৌতুকের জন্য চাপ সৃষ্টি করে আসছিল। বোনের সুখের চিন্তা করে তাকে একটি দুচালা টিনের ঘর তৈরী করেন ছোট ভাই সাইফুল ইসলাম। এছাড়াও বোন জামাই খোকনকে ব্যবসার জন্য ৪০ হাজার টাকা দেন। কিছুদিন পর আবারও যৌতুকের জন্য চাপ সৃষ্টি করেন তারা। এ সময় হেনা অস্বীকৃতি জানালে ২০১৫ সালের ৪ অক্টোবর রাতে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন তারা। এ ঘটনায় পরদিন রাতে হেনার ভাই সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে ৬ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত বেশ কয়েকজনকে আসামি করিমগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা করিমগঞ্জ থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক (এসআই) জহিরুল ইসলাম ২০১৬ সালের ১৫ মার্চ অভিযোগপত্র দাখিল করেন। দীর্ঘ স্বাক্ষগ্রহণ শেষে এ রায় ঘোষণা দেন বিচারক।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category