আজ ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কিশোরগঞ্জে নকল ক্যাবল বিক্রয়ে দুই প্রতিষ্ঠানকে দুই লক্ষ টাকা জরিমানা, লক্ষাধীক টাকার মালামাল জব্দ

নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ কিশোরগঞ্জে নকল সাব-স্ট্যান্ডার্ড ক্যাবল বিক্রয়ের অপরাধে দুই প্রতিষ্ঠানকে দুই লক্ষ টাকাসহ এক মিষ্টি দোকানকে দশ হাজার ( মোট অর্থ:২,১০,০০০) টাকা জরিমানা ও লক্ষাধীক টাকার মালামাল জব্দ করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কিশোরগঞ্জ।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কিশোরগঞ্জের সহকারী পরিচালক জনাব হৃদয় রঞ্জণ বণিক জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায়, কিশোরগঞ্জ জেলা শহরে নকল ক্যাবল তার,সকেট সহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিকস পণ্য দেদারসে বিক্রি হচ্ছে যাতে ভোক্তা গণ মারাত্মক ভাবে প্রতারিত হচ্ছে।নকল ক্যাবল যা ওজনে কম এবং সাব স্ট্যান্ডার্ড ইলেকট্রিক পণ্য ভোক্তা নিজের অজান্তে ব্যবহার করে প্রতারিত হওয়ার পাশাপাশি বৈদ্যুতিক দুর্ঘটনায় জীবন মান হুমকির সম্ভাবনা থাকায়, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর এর মহাপরিচালক মহোদয়ের নির্দেশনায় ২৬ জুলাই( মঙ্গলবার) কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের গৌরাঙ্গ বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়।
বাজারে ইলেট্রিক ক্যাবল,লাইট,ফ্যান এর বাজার মনিটরিং এর সময় মেসার্স স্বর্ণা ইলেকট্রিক এ বিএসটিআই অনুমোদন হীন ক্যাবল আছে কী না জিজ্ঞেস করায় কর্তৃপক্ষ প্রথমে অস্বীকার করে কিন্তু এই প্রতিষ্ঠানের গোডাউনে মিলল নকল ,বিএসটিআই অনুমোদন হীন ক্যাবল তারের কয়েল। এছাড়া পাওয়া যায় অনুমোদন হীন সুইচ,সকেট ও হোল্ডার।
সাকিব ইলেকট্রনিক্সেও পাওয়া যায় বিভিন্ন কোম্পানির সিল যুক্ত নকল ক্যাবল কয়েল তার।যা বিএসটিআই নির্দেশনা অনুযায়ী মোড়কে দেওয়া তথ্যের সাথে কোন মিল নাথাকায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ অনুযায়ী মেসার্স স্বর্ণা ইলেকট্রিক কে (এক লক্ষ)১,০০,০০০/ টাকা এবং সাকিব ইলেকট্রনিকস কে(এক লক্ষ) ১,০০,০০০/টাকা জরিমানা আদায় ও বিএসটিআই অনুমোদন হীন ( ক্যাবল, সুইচ,সকেট ও হোল্ডার) লক্ষাধীক টাকার মালামাল জব্দ করা হয় যা, আইনানুগ প্রক্রিয়ায় ধ্বংস করা হবে।
এছাড়া ননী গোপাল সুইটস কেবিনে মিষ্টি এবং রসমঞ্জুরী, অস্বাস্থ্যকর অবস্থায় পাওয়ায় (দশ হাজার)১০,০০০/টাকা জরিমানা আদায় সহ সর্বমোট দুই লক্ষ দশ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কিশোরগঞ্জের সহকারী পরিচালক জনাব হৃদয় রঞ্জণ বণিকের নেতৃত্বে ও জেলা ক্যাবের সভাপতি আলম সারওয়ার টিটু, উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর রফিকুন্নেসা পুষ্প ও জেলা পুলিশের একটি টিম অভিযানটি পরিচালনায় সার্বিক সহযোগিতা করেন। জনস্বার্থে এ অভিযান চলমান থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category