আসন্ন ইউপি নির্বাচনে জনপ্রিয়তার শীর্ষে ফুলমিয়া “প্রার্থীর চাওয়া নৌকা”

নিজস্ব প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জ হতে ব্যাক্তিগত কাজে বেড়িয়েছিলাম বাইক নিয়ে জাউয়ারের উদ্দেশ্যে, বাইকে আরোহী বন্ধুটি হঠাৎ বললো দোস্ত চাখাবো কিছুদূর গিয়ে দাড়াই তাড়াইল মাদ্রাসা মার্কেটে ভান্ডারীর চায়ের দোখানে, চায়ের অর্ডার দিয়ে দু’জন বসেযাই টেবিলে মোবাইলটা হাতে নিয়ে ফোন করবো যার উদ্দেশ্যে বের হওয়া ব্যাক্তিটিকে। চা এসেযায় টেবিলে চায়ে চুমুক দিতে দিতে লক্ষ করি অপর টেবিলে ৫০-৮০ বছরের পাঁছজন মুরুব্বী গল্পে মসগুল সামনের নির্বাচনে জনপ্রিয়তা ও মনোনয়ন প্রত্যাশীদের হিসাব-নিকাশ নিয়ে।
সেইসাথে একজন চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রসংশায়, আমিও মনোযোগী হই তাদের গল্পে। একটু কৌতূহলী হয়ে তাদের সাথে মিশেযাই আবার অর্ডার করি মোট সাতটি চায়ের, চা-চক্রে শুনতে থাকি চেয়ারম্যান প্রার্থীর (পুর্বরাজনৈতিক, সামাজিক, সমাজ সেবক, দানবীর ও সফলতা)’র কথা।
আবার চা খাওয়ার সময় এসেযায় মুরুব্বীদের চা অফার করলে একজন হেসে হেসে বলেন না বাবা আর না, বলে বেড়িয়ে যান চা দোখান থেকে। রয়েযান মোঃ মতি মিয়া, মোঃ সোহেল মিয়া ও আঃ জলিল নামে তিনজন মুরুব্বী। তাদের কাছথেকে শুনতে থাকি একজন প্রার্থী যিনি রয়েছেন জনপ্রিয়তার শীর্ষে।

যিনি হাসান আহমদ সাজিদা হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার প্রতিষ্ঠাতা, সামাজিক কর্মকান্ডে রয়েছে মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের তাড়াইল উপজেলার সাধারন সম্পাদক, সাবেক সভাপতি তাড়াইল উপজেলার অটো টেম্পু অটো রিক্সা পরিবহন মালিক সমিতি, কিশোরগঞ্জ জেলা শাখার যুগ্ন সাধারন সম্পাদক অটো টেম্পু অটো রিক্সা পরিবহন মালিক সমিতি।
যিনি জনপ্রতিনিধি নাহয়েও সবমসময় গরীব-দুঃখী অসহায়ের পাশে বাড়িয়েছেন সাহায্যের হাত, করোনা মোকাবেলায় নিয়োমিত মাস্ক, চাউল, ডাল,আলু,তেল,আটা,মুড়ি ও খেজুর সহ নানা সামগ্রী নিয়ে দাড়িয়েছেন কর্মহীন গরীব অসহায়ের পাশে। যিনি দিনরাত আপদে বিপদে অর্থ ও শ্রমদিয়ে সাধারন মানুষের পাশে দাড়িয়েযান।

ও হ্যাঁ উনারা বলছিলেন তাড়াইল ৭ নং সাচাইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী “হাজী মোঃ দেলোয়ার হোসেন ফুলমিয়া”র কথা।
তিনি চেয়ারম্যান হলে তার হাতে নিরাপদ তাড়াইল ৭ নং সাচাইল ইউনিয়নের সাধারন জনগন ও পরিষদ।
আসন্ন নির্বাচনে বর্তমান চেয়ারম্যান ও অনান্য ৩/৪ জন প্রার্থীদের ব্যাপারে জানতে চাইলে কোন মন্তব্য করতে রাজিনন তারা। শুধু এটুকুই বলে চলেযান যে আপনারা ইউনিয়নের প্রতিটি অলিগলি মোড়ে মোড়ে চায়ের দোখানে এখন ফুলমিয়ার কথাই শুনবেন।

এখানে বসেই এবার ইচ্ছে হলো এমন মানুষটাকে নিজ চোখে দেখার, চা দোকানদার চেয়ারম্যানের ফোন নাম্বারটা সংগ্রহ করে দেন, ফোন দেই নাম্বারে অপরপ্রান্ত হতে প্রথমেই আসে সালাম, আমি সালামের উত্তর দেই ও জানতে চাই আপনি কি চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজী ফুলমিয়া বলছেন উত্তরে আসে জ্বি, আপনি কে বলছেন আমি আপনার কি কাজে আসতে পারি? আমি পরিচয় দিয়ে বললাম আপনার সাথে একটু কথা বলতে চাই সামনা সামনী, উনি জেনে নিলেন আমার অবস্থান আর ৫ মিনিটের মধ্যেই চলে আসেন বাইকেচরে।
কথা হয় চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজী ফুলমিয়ার সাথে চায়ের দোখানে মুরুব্বীদের কথা বললাম, উনি হেসেদিয়ে বলেন উনারা সবটুকুই বেশী বলেছেন, আমি তাড়াইলের অতি সাধারন একজন ব্যবসায়ী মানুষ, ক্ষতিগ্রস্থ মুক্তিযোদ্ধা ও প্রতিষ্ঠাতা আওয়ামিলীগ পরিবারের সন্তান। আমি জনগনের ভালোবাসায় ও চাপে পড়ে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছি।

কথা প্রসংঙ্গে তার পারিবারিক সম্পর্কে জানাযায়, তার বাবা হাছান আহমেদ হাছু বেপারী ছিলেন একাধিক বার ৭ নং সাচাইল ইউনিয়নের (সাবেক চেয়ারম্যান)
প্রবীন আওয়ামীলীগের অভিভাবকদের মধ্যে অন্যতম এবং স্বাধীনতা সংগ্রামের পক্ষে সক্রিয় নেতাদের মধ্যে একজন, তার আপন তিন বড় ভাই ছিলেন বীরমুক্তিযোদ্ধা । তার বড় ভাই সাবেক তাড়াইল থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি জয়নাল আবেদীন রঙ্গু মিয়া ও বর্তমান মহামান্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এডভোকেট ছিলেন ঘনিষ্ঠ বন্ধু ।

তার আরেক বড় ভাই নূরুল হক লালমিয়া ছিলেন বৃহত্তর ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও তাড়াইল থানা শ্রমিক লীগের প্রতিষ্ঠাতা। এবং ভাই মুজিবুর রহমান ১৯৭১ সালে জীবন বাজী রেখে মুক্তিযুদ্ধে পাক-বাহিনীর সাথে সম্মুখ যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েন ইতিহাসই তার সাক্ষ্য।

বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম, প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান ও বর্তমান রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বিভিন্ন সময়ে এই তিনজন রাষ্ট্র প্রধান তাদের বাড়িতে এসে এই পরিবারের খোঁজ খবর নিতেন।

তাদের পরিবারে দেশপ্রেম থেকেই লোভনীয় অনেক প্রস্তাব পেয়েও কোন স্বাধীনতা বিরোধী পরিবারের সাথে আত্মীয়তা করেনি ।

তার সঙ্গে কথা বলে আরো যানাযায় তিনি একজন সফল ব্যবসায়ী ও ঠিকাদার। তার রয়েছে তাড়াইল বাজারে মেসার্স দেলোয়ার হোসেন ও মেসার্স রাহমানিয়া ট্রেডার্স নামিও প্রতিষ্ঠান এবং দি মেডিনোভা ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের পার্টনার।

তিনি আসছে ১১ নভেম্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৭নং তাড়াইল-সাচাইল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক প্রত্যাশী।

তিনি আশাবাদী তার দল আওয়ামীলীগ তাকে মুল্যায়ন করবেন, তার হাতেই তুলে দিবেন নৌকা। তিনি আরো আশাবাদী নৌকা প্রতীক পেলে ৭নং তাড়াইল-সাচাইল ইউনিয়নের প্রায় ১৭ হাজার ভোটার তাকে নিরাশ করবেনা।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *