প্রবীন শাইখুল হাদীস শামসুল ইসলামের জানাযা সকাল ১০ টায় শোলাকিয়া ঈদগাহে

নিজস্ব প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আল জামিয়াতুল ইমদাদিয়ার শাইখুল হাদীস, ঐতিহাসিক শহীদী মসজিদের খতীব আল্লামা শামসুল ইসলাম সোমবার (৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ২টা ৫মিনিটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।
মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর।

পারিবারিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মরহুমের জানাযা আগামী কাল সকাল ১০ টায় ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ্ ময়দানে অনুৃষ্টিত হবে।

জানাজা শেষে হুজুরের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে তার দেশের বাড়ি সিলেটে।

তিনি দীর্ঘ ১৯ দিন আইসিইউতে থাকার পর সেখানেই তার মৃত্যু হয়। তিনি বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় ভুগছিলেন। গত ১৯ জানুয়ারি তাঁকে প্রথমে কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়। সেখানে প্রথমে আজগর আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সোমবার (৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুর আড়াইটার দিকে তাঁর ইন্তেকালের খবর নিশ্চিত করেছেন শাইখুল হাদীস আল্লামা শামসুল ইসলাম (র.) এর ছেলে মোহাম্মদ ও জামাতা মাওলানা আমিনুল ইসলাম মামুন।

তাঁর মৃত্যুতে কিশোরগঞ্জসহ সারা দেশের আলেমসমাজে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে দেশবাসীর কাছে আত্মার মাগফিরাতের জন্য দোয়া চেয়েছেন।

মরহুম শাইখুল হাদীস আল্লামা শামসুল ইসলাম একজন বিচক্ষণ ও বর্ষীয়ান আলেমদ্বীন। প্রাণবন্ত ব্যক্তিত্বের অধিকারী বিদগ্ধ আলেম আল্লামা শামসুল ইসলামের হাদীস শাস্ত্রের উপর বিশেষ দক্ষতা থাকায় আল জামিয়াতুল ইমদাদিয়ায় ১৯৮৩ সাল থেকে এ পর্যন্ত অত্যন্ত সুনামের সাথে পাঠদান দিয়ে আসছিলেন।

দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ওয়াজ মাহফিলের মাধ্যমে দ্বীনের প্রচারে তাঁর অসামান্য ভূমিকা রয়েছে। ফলে পুরো দেশেই তাঁর হাজারো ছাত্র ও ভক্ত রয়েছে।
এছাড়া আল্লামা শামসুল ইসলামের তাফসির শাস্ত্রেও অসামান্য দক্ষতা থাকায় ১৯৮৬ সাল থেকে ঐতিহাসিক শহীদী মসজিদে প্রতি শনিবার সন্ধ্যায় কোরাআনে পাকের তাফসির করে আসছিলেন।

জীবদ্দশায় তিনি সূরা ফাতেহা থেকে শুরু করে সূরা ইকরা পর্যন্ত তাফসির সম্পন্ন করেছেন। তার তাফসিরেও হাজারো মহিলা দ্বীনের পথে ফিরে এসেছেন।

এ জন্য কিশোরগঞ্জের আলেমসমাজ ও তৌহিদী জনতার মধ্যমণি হিসেবে সবাই তাঁকে সমীহ করেন।

মরহুমের লাশবাহী গাড়ী ঢাকা থেকে সন্ধার পুর্বেই কিশোরগঞ্জের উদ্দ্যেশে রওয়ানা হয়েছে।
তার মরদেহ প্রথমে তার প্রিয় প্রতিষ্ঠান ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আল জামিয়াতুল ইমদাদিয়ায় আনা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *