আজ ৯ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কিশোরগঞ্জ সদরের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আর নেই

নিজস্ব প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ৯ নং চৌদ্দশত ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক জনপ্রিয় চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট সমাজসেবক মোঃ আবুল কালাম আজাদ (৬৭) আর নেই। মরহুমের জানাজা ও দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

শুক্রবার (২১জুন) বাদ আছর চৌদ্দশত ঈদগাহ মাঠে মরহুমের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজা শেষে তাকে নিজ বাড়ির পাশে জামে মসজিদ সংলগ্ন পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

জানাজার নামাজে ইমামতি করেন মরহুমের ভাতিজা চৌদ্দশত ইউনিয়নের কাজী মাওঃ মিনহাজ উদ্দিন। নামাজে জানাজার পূর্বে শোকাহত জনতার উদ্দেশ্য মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. এমএ আফজল, সাংগঠনিক সম্পাদক ভিপি আজিজ, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক সামছুল ইসলাম খান মাসুম, আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার কামাল, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো: আওলাদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুস ছাত্তার, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি এড. আতাউর রহমান।
এই ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আতাহার আলী, সাবেক চেয়ারম্যান আ: করিম ও এবি সিদ্দিক খোকা, পাকুন্দিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক আজিজুল হক, কটিয়াদি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন মিলন চেয়ারম্যান, মরহুমের তাবলীগের সাথী মাওলানা আবু সাঈদ, এলাকা বাসী বিএনপি নেতা জাহাঙ্গীর আলম, নজরুল ইসলাম গোলাপ প্রমূখ।

তাছাড়া মরহুমের মৃত্যু সংবাদ পেয়ে শোক জানিয়েছেন সাবেক মহামান্য রাষ্ট্রপতি এড. আবদুল হামিদ, শোকবার্তা পাঠিয়েছেন কিশোরগঞ্জ -১ আসনের (কিশোরগঞ্জ সদর-হোসেনপুর) মাননীয় সংসদ সদস্য ডা. সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপি।
জানাজার পুর্বে বক্তব্য রাখেন বেসরকারি অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষা বোর্ডের সচিব, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শরীফ আহমদ সাদী, সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মামুন আল মাসুদ খান।
এছাড়া পরিবারের পক্ষ থেকে সবার কাছে দোয়া চেয়ে বক্তব্য রাখেন মরহুমের ছোট ছেলে আজাদ পারভেজ।
এ সময় জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন শ্রেণির নেতৃবৃন্দসহ বিশিষ্ট জন, ব্যবসায়ী, জনপ্রতিনিধি, বিএনপিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, মরহুমের সকল পর্যায়ে আত্মীয়-স্বজন শুভাকাঙ্ক্ষী এবং দল-মত নির্বিশেষে এলাকার সর্বস্তরের মানুষ।এছাড়াও আলেম-ওলামাগণ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গণমানুষের নেতা ও জনপ্রিয় সাবেক এই চেয়ারম্যান সকাল ১০:৫০ মিনিটে হৃদযন্ত্রক্রিয়া বন্ধ হয়ে নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তিনি ছিলেন মরহুম আ: কাদির মাস্টার এর আট মেয়ে ও তিন ছেলের মধ্যে মেজো সন্তান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর। তিনি স্ত্রী, তিন ছেলে, দুই মেয়েসহ অগণিত আত্মীয়-স্বজন ও শুভাকাঙ্ক্ষী রেখে গেছেন। জানাযার নামাজে ও দাফনে কিশোরগঞ্জের বিশিষ্টজন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ জনপ্রতিনিধি সহ সর্বস্তরের হাজার হাজার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

আবুল কালাম আজাদ চৌদ্দশত ইউনিয়নের সাবেক সফল জনপ্রিয় চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের পদধারী একাধিক দ্বায়িত্ব পালন করেন। তিনি এলাকার সর্ব মহলের কাছে পরিচিত একজন জননন্দিত ন্যায় বিচারক মানুষ ছিলেন।তার মৃত্যুতে এলাকায় গভীর শোকের ছায়া নেমে আসে এবং বিভিন্ন মহল শোক প্রকাশ করেন। আল্লাহ রাব্বুল আলামীন মরহুমকে জান্নাতুল ফেরদৌস নসিব করুন আমীন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category