আজ ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৬শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ইউএনও’র প্রচেষ্টায় জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনে জেলায় শ্রেষ্ঠ ত্রিশাল উপজেলা

মোঃ আসাদুল ইসলাম মিন্টু ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ

জন্ম নিবন্ধন ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যক্রম গতিশীল করে ময়মনসিংহ জেলার ১৩টি উপজেলার মধ্যে ত্রিশাল উপজেলা প্রথম স্থান অর্জন করেছে। এর নেপথ্যে কাজ করেছেন তিনি ত্রিশাল উপজেলার সুযোগ্য নির্বাহী অফিসার মোঃ আক্তারুজ্জামান।

এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের তালিকায় প্রথম স্থানে ত্রিশাল, দ্বিতীয় স্থানে ধোবাউড়া ও তৃতীয় স্থান অর্জন করে গফরগাঁও উপজেলা।
দক্ষতার সাথে এ সফলতা অর্জনে পেছনের গল্পে যিনি মূল ভূমিকা পালন ও সার্বিক সমন্বয় সাধন করে ত্রিশাল উপজেলাকে এ গৌরবময় তালিকায় নামটি তোলে এনেছেন তিনি হলেন ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আক্তারুজ্জামান।

উপজেলা আইসিটি সেন্টার সূত্র জানায়, গত সেপ্টেম্বর মাসে জন্ম নিবন্ধনে ত্রিশাল উপজেলার টার্গেটে ছিল ৯৫৪জন, টার্গেট অনুযায়ী শূণ্য থেকে এক বছর বয়সি জন্ম নিবন্ধন করা হয় ১৭৫২টি। যার মোট পারসেন ছিল ১৮.৬৫%।

অপরদিকে মৃত্যু নিবন্ধনের টার্গেট ছিল দুইশত, যেখানে টার্গেট ছাড়িয়ে করা হয়েছে ২৯৮টি। যার মোট পারসেন লিছ ১৬৬.৩২%। ময়মনসিংহ জেলার ১৩টি উপজেলার মধ্যে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনে প্রথম স্থান অর্জন করে এবং ১৪০টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ত্রিশাল উপজেলার ৯নং বালিপাড়া ইউনিয়ন প্রথম স্থান অর্জন করে।জেলার ১০টি পৌরসভার মধ্যে ত্রিশাল পৌরসভা প্রথম স্থান অর্জন করেছে।

ত্রিশাল পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ রাশিদুল হাসান বিপ্লব জানান, আমাদের জন্ম নিবন্ধনে টার্গেট ছিল ৭৮জন, যার মধ্যে শূন্য থেকে এক বছরের মধ্যে নিবন্ধন করা হয়েছে ৯৪জন। যার গড় হচ্ছে ১২০.৫১%। অপরদিকে মৃত্যু নিবন্ধনের টার্গেট ছিল ১৬জন যার ১৬টিই করা হয়েছে। আগামীতেও এ ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখবেন বলেও তিনি প্রত্যাশা করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আক্তারুজ্জামান জানান, সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যক্রমের সফল বাস্তবায়নে ত্রিশাল উপজেলার সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, সচিব, মেম্বার ও সংশ্লিষ্টদের সাথে বারবার মতবিনিময় করা হয়েছে। চেয়ারম্যান ও সচিবদেরকে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনের জন্য জোর তাগিদ দেওয়া হয়েছে, তথ্য যাচাই বাছাই করে যেন সেবা প্রত্যাশীদের দ্রুত সেবা প্রদান করা হয় সে বিষয়েও নির্দেশনা দেওয়া হয়। নির্দেশনা ও কাজের সফল বাস্তবায়নে সবসময় ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্বশীলদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করার ফলে আজ ত্রিশাল উপজেলা, ত্রিশাল পৌরসভা ও বালিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ জেলায় প্রথম স্থান অর্জন করেছে। এর ধারাবাহিকতা ধরে রাখার চেষ্টা করবো।ইনশাআল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category