আজ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ত্রিশালের কীর্তি সন্তান ডাঃ মনোয়ার 

ফাতেমা শবনম, ত্রিশাল( ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ

ময়মনসিংহের ত্রিশালে জনপ্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান করছেন ডাঃ মনোয়ার সাদাত।

ডাক্তারি পেশার সাথে যুক্ত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে সর্বস্তরের রোগীদের সেবায় নিয়োজিত আছেন তিনি। রোগীদের সাথে আন্তরিক ব্যবহার সুচিকিৎসা তাকে জনসম্মুখে জনপ্রিয় করে তুলেছেন। ইতিমধ্যে তিনি সমাজের সকল স্তরের মানুষের কাছে একজন দক্ষ,পরিশ্রমী ও মেধাবী ডাক্তার হিসেবে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেছেন।

জানা গেছে ১৯৮১ সালের ৫ই ফেব্রুয়ারী বালিপাড়া ইউনিয়নের মধ্যে বালিপাড়া গ্রামের এক সম্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। মোঃ আব্দুল খালেক সাহেবের সাত সন্তানের মধ্যে তিনি ৫ম ছেলে। তিনি দরিরামপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৫ম শ্রেনী পাশ করেন।

৬ষ্ঠ ও ৭ম শ্রেনী নজরুল একাডেমিতে। ১৯৯৭ সালে ময়মনসিংহ জিলা স্কুল থেকে স্টার মার্কসহ ফাস্ট ডিভিশন পেয়ে এস,এস,সি পাশ করেন। ১৯৯৯ সালে এইচএসসিতেও স্টার মার্কসহ ফাস্ট ডিভিশন পান তিনি। ২০০০-২০০১ সেশনে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ভর্তি হন। ২০০৭ সালে এমবিবিএস ডিগ্রী ২০০৮ সালের ডিসেম্বরে ইন্টারশীপ শেষ করে ঢাকা হতে এমবিবিএস সনদপ্রাপ্ত হয়ে বিএমডিসি সনদ গ্রহণ করেন।সনদ নাম্বার A-৪৭১৫৯। ২৮তম বিসিএস এ উত্তীর্ণ হওয়া সত্বেও ২০১৭ সালের ১জানুয়ারী সরকারি চাকরিতে প্রবেশ করেন তিনি। ১ম পোস্টিং বান্দরবানের থানচি উপজেলায়। করোনা কালীন সময়ে রোগীদের সেবায় অক্লান্ত পরিশ্রম করে বিশেষ সম্মাননা পদক পান তিনি।

২০১৮ সালে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের জন্য ভর্তি হন প্রেশন ঢাকা মেডিকেল কলেজে। ২০১৯ সালের মার্চ মাসে ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগদান করেন তিনি।
স্বেচ্ছাসেবক ইউনিয়ন সমন্বয়ক মো.আরিফ হোসেন সরকার বলেন, ডাঃ মনোয়ার খুব ভালো মনের একজন মানুষ। তিনি ত্রিশালের ডাঃ ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগদান করেছেন বলে,খুব সহজেই এলাকার লোকজন তার কাছ থেকে সেবা নিতে পারে। রাত ১টা ২টা সময় বিপদে পরে কল দিলেও বিরক্ত না হয়ে চিকিৎসা সেবার জন্য পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

বাগান ইসলামীয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ ইবনে খালিদ মাস্টার বলেন, মনোয়ার আমাদেরই এলাকার ছেলে, খুবই নম্রভদ্র একজন ছেলে। ডাক্তার হিসেবেও সে মানবিক। যে কোনো মুহূর্তে, যে কোনো পরিবেশে তার কাছে চিকিৎসা মূলক পরামর্শ চাইলে খুব সহজেই সহযোগিতা পাওয়া যায়। তার সুন্দর আচরণ এবং বিরক্ত না হয়ে ধৈর্য্য ধরে রোগীদের সেবা দিয়ে ইতিমধ্যে সে সবার হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছে।

ডাঃ মনোয়ার সাদাত প্রতিবেদককে জানান, সেবাই হোক প্রতিটি মানুষের ধর্ম। আমি বান্দরবানে যোগদান কালীন সময়ে বান্দরবান থানচি উপজেলার জনগন বলেন আপনার মতো মানবিক ডাঃ থানচিতে থাকলে থানচির স্বাস্থ্য সেবার আমূল পরিবর্তন সম্ভব। থানচি থেকে চলে আসার সময় সকল উপজাতি গোত্রের গ্রাম প্রধান আমাকে বিদায় জানান এবং আবার থানচিতেও যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন, সারাজীবন মানুষের পাশে থেকে মানুষের সেবায় নিজেকে উজার করে দিতে চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category