আজ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে নবীন শিক্ষার্থীদের ‘ওরিয়েন্টেশন’ অনুষ্ঠিত

ফাতেমা শবনম : বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের সম্মানিত চেয়ারম্যান মো. সোহরাব হোসাইন বলেছেন, আমরা যে যে বিশ্ববিদ্যালয়েই পড়িনা কেন সেটি আমাদের নিজেদের কাছে সেরা প্রতিষ্ঠান। আমাদের শিক্ষকরা সেরা শিক্ষক।

তাই আমাদের প্রত্যেকের দায়িত্ব সকল কিছুর উর্ধ্বে আমাদের প্রতিষ্ঠানকে তুলে ধরা, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষাবান্ধব পরিবেশ ঠিক রাখা। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিত করা গেলে তা সকলের জন্যই মঙ্গল হবে।

সোমবার (০৭ ফেব্রæয়ারি) জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিকৃত নবীন শিক্ষার্থীদের ‘ওরিয়েন্টেশন’ প্রাগ্রামে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে পিএসসি চেয়ারম্যান বলেন, উন্নত বিশ্বে পরিণত হওয়ার জন্য সরকার নানা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে উন্নত বিশ্বে পরিণত হওয়ার যে অপ্রতিরোধ্য অভিযাত্রা শুরু হয়েছে তা ইতোমধ্যে সারাবিশ্ব অঙ্গীকার করছে। এই অভিযাত্রা দক্ষ জনবল তৈরি হয় বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে। বিশ্ববিদ্যালয় আমাদের নেতৃত্বের গুণাবলিকে শাণিত করে, ভালোমন্দ বিচার বিশ্লেষণ করার ক্ষমতা দেয়, সিদ্ধান্ত নেওয়ার সক্ষমতা তৈরি করে। এসব কারণে বিশ্ববিদ্যালয় আমাদের জীবনে একটি প্রতিষ্ঠান।

ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. সৌমিত্র শেখর। সভাপতির বক্তব্যে প্রফেসর ড. সৌমিত্র শেখর নবীন ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশে বলেন, নবাগত শিক্ষার্থীরা আমাদের থেকে বিচ্ছিন্ন নয়। তারা যদি লেখা পড়া ঠিক মতো করে, চরিত্র গঠন করে, বাহাত্তরের সংবিধান অনুসারে উন্নত দেশের অভিযাত্রায় নিজেদের শামিল করে তাহলে তাদের ভবিষ্যৎ হবে সোর্ণালী ভবিষ্যৎ।

পিএসসি চেয়ারম্যানের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা প্রত্যাশামত লেখা পড়া করবে, চরিত্র গঠন করবে, উন্নত দেশের সংগ্রামে শামিল হবে।

তারা কর্মজীবনে প্রবেশের ক্ষেত্রে যদি প্রিলিমিনারি ও লিখিত পরীক্ষায় পাশ করে যখন বাহিরে যাবে, তাদের যদি আপনি দেখেন তারা উন্নত চরিত্রগঠন করে আপনার সামনে এসেছে তাহলে তাদের যথাযোগ্য জায়গায় আপনি স্থাপন করবেন, সেটাই আমরা চাই। এসময় উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ক্যালেন্ডারের মোড়ক উন্মোচন করেন এবং তা ছাত্রছাত্রীদের হাতে তুলে দেন।
একাডেমিক ক্যালেন্ডার যথাযথভাবে অনুসরণ করে সেশন জ্যামমুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় গঠন করে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় উন্নত বাংলাদেশের অভিযাত্রায় সামিল হবে বলে ওরিয়েন্টেশনে আশাবাদ ব্যক্ত করেন মাননীয় উপাচার্য।
অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন ট্রেজারার প্রফেসর মো. জালাল উদ্দিন, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. নজরুল ইসলাম, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. মুহাম্মদ এমদাদুর রাশেদ, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম বাবু, সাধারন সম্পাদক রাকিবুল হাসান রাকিব। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দিয়ে সঞ্চালনা করেন রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ ড. মো. হুমায়ুন কবীর। নবীন শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনুভূতি ব্যক্ত করেন তাবাস্সুম মেহনাজ ও রাশেদুল আলম। এসময় বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, দপ্তর প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন। নবীন শিক্ষার্থীরা অনলাইনে ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন। প্রকাশিত একাডেমিক ক্যালেন্ডার বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা তাদের নিজ নিজ বিভাগ থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category