মাধবদীতে প্রবাস ফেরত যুবকের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার

মাধবদী (নরসিংদী) প্রতিনিধি ঃ প্রবাস ফেরত এক যুবকের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে মাধবদী থানা পুলিশ। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নরসিংদী সদর উপজেলার মাধবদী থানার আমদিয়া ইউনিয়নের ভূঁইয়ম গ্রামের একটি খোলা মাঠের পাশ থেকে মোঃ কাইয়ুম মিয়া(৩৫) নামের প্রবাস ফেরৎ এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মৃত কাইয়ুম মিয়া বীর মুক্তিযোদ্ধা রশিদ মিয়ার ছেলে। দীর্ঘদিন প্রবাসে থাকার পর সম্প্রতি দেশে ফিরেছেন তিনি। নিহতের পরিবারের সদস্যরা জানান, গতকাল রোববার সকালে কাইয়ুম মিয়া ব্যক্তিগত একটি কাজে বাড়ি থেকে বের হয়। রাত সাড়ে ৮টার দিকে তাঁর সঙ্গে সর্বশেষ কথা হয় পরিবারের। রাত ৯টার পর থেকে কাইয়ুমের সঙ্গে আর যোগাযোগ করতে পারছিলেন না পরিবারের সদস্যরা। রাতে বাড়ি না ফেরায় বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তাঁর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। পরে আজ সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বাড়ির পার্শ্ববর্তী একটি মাঠে তাঁর মরদেহ পড়ে থাকার খবর পান তাঁরা। পুলিশ ও স্থানীয়রা বলেন, আজ সকাল সাড়ে ৮টার দিকে স্থানীয় কয়েকজন ব্যক্তি বাড়ির অদূরে একটি খোলা মাঠের এক পার্শে কাইয়ুম মিয়ার গলাকাটা মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন। পরে তাঁরা কাইয়ুমের পরিবারের সদস্যদের খবর দেন। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মাধবদী থানা-পুলিশে খবর দিলে মাধবদী থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ ফরহাদ হোসেন বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে কাইয়ুম মিয়া(৩৫) এর মরদেহ উদ্ধার করেন। পরে মরদেহের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। নিহতের বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা রশিদ মিয়া বলেন, আমার ছেলেকে কে বা কারা এভাবে হত্যা করলো এখনো তা বুঝতে পারছি না। তার সঙ্গে কারও কোনো শত্রুতা থাকার কথাও আমি কখনো শুনিনি। আমি আমার ছেলে হত্যার কঠোর বিচার চাই। মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সৈয়দুজ্জামান বলেন, গলাকাটা মরদেহ পড়ে থাকার খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তা উদ্ধার করেছি। ঠিক কি কারণে তাঁকে এমনভাবে হত্যা করা হলো তা জানতে পুলিশি তদন্ত শুরু হয়েছে। এ ঘটনায় পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *