আজ ১৭ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

জাগ্রত তেঁতুলিয়ার তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত, চালু হচ্ছে টেলিমেডিসিন সেবা

অনলাইন ডেস্ক : হিমালয় বিধৌত পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার স্থানীয় তরুণদের নিয়ে গঠিত স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন জাগ্রত তেঁতুলিয়া। ৫ সেপ্টেম্বর, রবিবার এই সংগঠনটির তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হলো। এ উপলক্ষে করোনাকালে সীমিত পরিসরে তেঁতুলিয়ার ঐতিহাসিক ডাকবাংলোয় আনুষ্ঠানিকভাবে কেক কেটে ও সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা করে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করা হয়।

সংগঠনটির অন্যতম মুখপাত্র ফেরদৌস আলম লিটনের সভাপতিত্বে এবং মো. সোহেল রানার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে এসে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, গ্রিণ তেঁতুলিয়া ক্লিন তেঁতুলিয়ার প্রধান সমন্বয়ক কাজী মতিউর রহমান, শিশুস্বর্গ ফাউন্ডেশনের পরিচালক কবির আকন্দ, জার্নালিস্ট ক্লাবের আহবায়ক আশরাফুল ইসলাম, কথা সাহিত্যিক প্রভাষক হাফিজ উদ্দীন, ড্রাগস ফ্রি বাংলাদেশের পরিচালক আতিকুজ্জামান শাকিল, পরিবেশকর্মী মাহমুদুল ইসলাম মামুন, আতাউর মানিক, হুমায়ুন কবির, এসকে দোয়েল, কবির হোসেন, তহিদুল ইসলাম, দেলোয়ার হোসেন নয়ন, মোবারক হোসেন, আহসান হাবীব, রাব্বি ইমন, রবিউল ইসলাম রতন, আল ফারুক জিম, খাদেমুল ইসলাম প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, প্রতিষ্ঠার তিন বছরে এই সংগঠনটি এলাকায় অনেকগুলো সামাজিক কর্মসূচি গ্রহণ করে মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পেরেছে। ড্রেজার মেশিনের মাধ্যমে রাতের আঁধারে মাটির নিচ থেকে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন বন্ধ করতে এই সংগঠনটিই সর্বপ্রথম আন্দোলনে নামে ২০১৮ সালে। অবৈধভাবে সেই পাথর উত্তোলন এখন বন্ধ হয়েছে প্রশাসনের সহায়তায়। এই সংগঠনের উদ্যোগে গত বছর শীতের সময় প্রায় এক হাজার কম্বল বিতরণ করা হয়েছে অসহায়-দুস্থ মানুষের মাঝে এবং এলাকার বিভিন্ন আবাসিক মাদ্রাসা এতিমখানায়। ঢাকা থেকে বিশেষজ্ঞ টিম এনে তেঁতুলিয়া-পঞ্চগড়ের ৬টি এলাকায় বিশেষ হেলথ স্ক্রিনিং ক্যাম্পের মাধ্যমে এক হাজার লোকের হাড় ক্ষয় সংক্রান্ত পরীক্ষা বিনামূল্যে করেছে। তেঁতুলিয়ার ৭টি ইউনিয়নে বিনামূল্যে ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্প করে পাঁচ হাজার লোকের রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করেছে। বাংলাবান্ধায় পাথর শ্রমিকদের মাঝে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ করেছে। অ্যাজমা রোগীদের জন্য বিনামূল্যে পরীক্ষা- নিরীক্ষাসহ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের নিয়ে হেলথ ক্যাম্প করা হয়েছে। স্থানীয় প্রচুর রোগীর চিকিৎসার বন্দোবস্ত করা হয়েছে রাজধানী ঢাকাসহ রংপুর, দিনাজপুর এলাকায়।

বক্তারা আরো বলেন, সম্প্রতি করোনাকালে লকডাউনের মধ্যেও কালের কন্ঠ শুভ সংঘের উদ্যোগে তিন হাজার লোকের মাঝে বসুন্ধরা গ্রুপের বিশেষ ত্রাণ উপহার বিতরণে সহায়তা করেছে জাগ্রত তেঁতুলিয়ার স্বেচ্ছাসেবীরা। হাট-বাজারে বিনামূল্যে ফেস মাস্ক বিতরণ কার্যক্রম এখনও অব্যাহত রয়েছে।

তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জাগ্রত তেঁতুলিয়ার প্রতিষ্ঠাতা, কালের কণ্ঠ’র সহ-সম্পাদক আতাউর রহমান কাবুল বলেন, শিগগিরই জাগ্রত তেঁতুলিয়ার উদ্যোগে এই অঞ্চলে বিশেষজ্ঞ টেলিমেডিসিন সেবা চালু করা হবে। অফিস এবং সেটআপ করার প্রযুক্তিগত সরঞ্জামের ব্যবস্থা করতে পারলেই আমরা এটা চালু করবো ইনশাআল্লাহ। এই টেলিমেডিসিন সেন্টার চালু হলে ঢাকায় না গিয়েও দেশের সেরা চিকিৎসকদের পরামর্শ পাবেন এই প্রান্তিক এলাকার রোগীরা।
তিনি বলেন, মানুষকে দেখানোর জন্য নয়, প্রকৃতপক্ষে মানুষের সেবা করে যাওয়াই আমাদের এই সংগঠনটির মূল উদ্দেশ্য।
তিনি আরো বেশি বেশি সামাজিক কাজ করার জন্য এলাকার তরুণদের জাগ্রত তেঁতুলিয়ায় যোগ দেবার আহ্বান জানিয়েছেন। এই সংগঠনটি ফেসবুক গ্রুপ : https://www.facebook.com/groups/jagrata.tetulia

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category