আজ ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১০ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

সৈয়দ আশরাফের ম্যুরালে হামলা,সর্বস্তরে নিন্দার ঝড়,থানায় মামলা ও বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জে আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী প্রয়াত সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের নামফলক এবং ম্যুরালে হামলা ও ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। প্রতিবাদে সর্বস্তরে বইছে নিন্দার ঝড়, থানায় মামলা ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ অনুৃষ্টিত।

কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের আখড়া বাজার ব্রিজ সংলগ্ন সৈয়দ নজরুল ইসলাম চত্বরে অবস্থিত ম্যুরালে গত বৃহস্পতিবার রাত অনুমান সাড়ে ৮টা থেকে ৯টার মধ্যে দুবৃর্ত্তরা হামলা চালিয়ে ম্যুরালটি ভাঙচুর করে।

কিশোরগঞ্জ পৌরসভার উদ্যোগে সম্প্রতি শহরের আখড়াবাজার ব্রিজ সংলগ্ন নরসুন্দা নদীর তীরে জাতীয় চার নেতার অন্যতম দেশের প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলামের ছেলে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ম্যুরাল নির্মিত করা হয়।

ভাঙচুরের ঘটনায় কিশোরগঞ্জ পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মো. রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে অজ্ঞাত কয়েকজনের নামে বিশেষ ক্ষমতা আইনে রাতেই কিশোরগঞ্জ সদর থানায় মামলা করেছেন।

ম্যুরাল ভাঙচুরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন কিশোরগঞ্জ ৪ আসনের (এমপি)সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহমেদ তৌফিক, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম, পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার), কিশোরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো. পারভেজ মিয়া, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কাদির মিয়া, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহামুদুল হাসান ও জেলা আওয়ামীলীগের সর্বস্তরের স্থানীয় নেতা-কর্মীরা।
এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার জানান, যথাযথ আইনগত ব্যবস্থার মাধ্যমে এই ঘটনায় যে বা যারা জড়িত তাদের খুঁজে বের করে দ্রুত আইনের আওতায় আনার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

কিশোরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো. পারভেজ মিয়া বলেন, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম একটি অনুভূতির নাম। যে দুর্বৃত্তরা ন্যক্কারজনক কাজটি করেছে তাদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানাছি।

উক্ত ঘটনায় দ্রুত দোষীদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনার জন্য, কিশোরগঞ্জ নাগরিক অধিকার সুরক্ষা মঞ্চ শুক্রবার বেলা ১১টায় শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম চত্বরের সামনে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে।
কিশোরগঞ্জ নাগরিক অধিকার সুরক্ষা মঞ্চের আহ্বায়ক শেখ সেলিম কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন – কিশোরগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটু, কেন্দ্রিয় ছাত্র লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অজয় কর খোকন প্রমূখ। মানববন্ধনে বক্তারা অবিলম্বে দুর্বৃত্তদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির দাবি জানান।
এসময় সর্বস্তরে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ মানববন্ধন ও বিক্ষোভে অংশ গ্রহণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category