আজ ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১০ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর জয়ের পাল্লা ভারী দেখে পোস্টারের সাথে এ কেমন দুশমনি

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর জয়ের পাল্লা ভারী দেখে পোস্টারের সাথে এ কেমন দুশমনি

নিজস্ব প্রতিনিধি : আসন্ন ১৬ জানুয়ারি কিশোরগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচনকে ঘিরে প্রার্থী, সমর্থক ও নেতাকর্মীদের মাঝে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করলেও কিছু প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মাঝে বিরাজ করছে অন্যরকম এক প্রতিহিংসার মনোভাব। যার প্রতিফলন ঘটছে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর পোস্টারের উপর।
চরশোলাকিয়া ৪ নং ওয়ার্ডের আজিম উদ্দিন স্কুল রোড থেকে রেললাইনের মোড় পর্যন্ত, সাহেব বাড়ি মোড় ও ঈদগাহ্ রোডের বেশ কয়েকটি জায়গায় পাওয়া যায় এর নমুনা। রাতের আধারে কে বা কারা কাউন্সিলর প্রার্থী রতন মিয়ার পাঞ্জাবি মার্কার পোস্টার ছিঁড়ে ফেলে দিচ্ছে ড্রেনে বা রাস্তার পাশে।

কাউন্সিলর প্রার্থী রতন মিয়া প্রতিবেদককে জানান, গত দু’দিনেই কে বা কারা আমার পাঞ্জাবী মার্কার পোস্টারের দড়ি কেটে সম্পূর্ণ পোস্টার নিয়ে যায় এবং রাস্তার পাশে ফেলেদেয়। আমি নির্বাচন কমিশনারের দেওয়া আচরণবিধি মেনে আটা দিয়ে কোন পোস্টার না লাগিয়ে দড়ি দিয়ে টানিয়ে দেই রাস্তার উপরে বা বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে। কিন্তু দুঃখের বিষয় নোংরা মন মানসিকতাপুর্ণ এক শ্রেণীর লোক আসছে নির্বাচনে আমার নিশ্চিত জয় দেখে হিংসায় বহির্ভূত হয়ে এ কাজ করে যাচ্ছে। আমি আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই আসুন এই নোংরামি প্রতি হিংসা বাদ দিয়ে হাতে হাত রেখে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে উৎসব মুখর ও আনন্দময় পরিবেশে ১৬ তারিখের নির্বাচনে ফলাফল জয় পরাজয় যাই হোক তা মেনে নেই।
মোঃ রতন মিয়া মহান সৃষ্টিকর্তা আল্লাহর উপর ভরসা রেখে বলেন, কোন কুচক্রী মহল প্রতিহিংসা বা পোস্টার গায়েব করে আমার কিছুই করতে পারবেনা, জনগণই আমার একমাত্র ভরসা এমন আশাবাদ ব্যাক্ত করে তিনি বলেন, আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে ৪নং ওয়ার্ডের সর্বস্তরের জনগণ আমাকে যে ভাবে সাপোর্ট ও সাহস দিয়ে যাচ্ছে তাতে কেউ আমাকে নিরাশ করবেন না অবশ্যই ভোট দিয়ে আমাকে জয়যুক্ত করবেন ইনশাআল্লাহ।

৫ জানুয়ারি মঙ্গলবার দিবাগত রাতে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঈদগাহ্ মাঠ সংলগ্ন একাধিক এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, যুবদল নেতা শোয়েব সাদেকিন বাপ্পি নামে একজনকে দেখেছি রতন মিয়ার পাঞ্জাবি মার্কার পোস্টার কেটে ফেলে দিতে, পরে অবশ্য চাপের মুখে পড়ে তা পুনরায় অন্যত্র টাংগিয়ে দেয়। কিন্তু গভীর রাতে কে বা কারা এসব পোস্টার কেটে ফেলে দিচ্ছে তা আমাদের জানা নেই।

এলাকাবাসীর মতামত ও বাস্তব চিত্রে দেখা যায় চরশোলাকিয়া ৪নং ওয়ার্ডে মোঃ রতন মিয়া তার নিজ এলাকা বাগপাড়াসহ বিশাল এলাকায় এবং ক্ষমতাসীন দলের একক প্রার্থী হওয়ায় রয়েছেন সুবিধাজনক স্থানে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category