আজ ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১০ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কিশোরগঞ্জের দুই হাওড় বাসীর সংঘর্ষে দুইজন নিহত, আহত অন্তত অর্ধশতাধিক

নিজস্ব প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের হাওর অধ্যুষিত ইটনা উপজেলার মৃগা ইউনিয়নে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে নিহত দুইজন, আহত হয়েছে অন্তত অর্ধ শতাধিক ব্যক্তি।

২৬ ডিসেম্বর শনিবার সকালে আন্ধাইর এলকায় প্রায় দেড় ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় লোকজন জানান টেম্পুস্টেশনে টেম্পুতে লোক উঠানোকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট বিরোধ ও এক ব্যক্তিকে মারধরের জেরে সকাল ৯টায় এ সংঘর্ষ হয়।
নিহতরা হলেন, প্রজারকান্দা গ্রামের নূর হোসেনের ছেলে বাদল মিয়া (৪৫) ও শান্তিপুর গ্রামের মৃত লাল মিয়ার ছেলে মিরাশ আলী (৭০)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, মৃগা ইউনিয়নের শান্তিপুর ও প্রজারকান্দা গ্রামের লোকজনের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে নানা বিষয় নিয়ে বিরোধ চলছিল। শুক্রবার স্থানীয় টেম্পুস্ট্যান্ডে টেম্পুতে লোক উঠানোকে কেন্দ্র করে দুগ্রামের কয়েকজনের সঙ্গে ঝগড়া হয়। রাতে আমিরগঞ্জ বাজারে দু’পক্ষে এসব নিয়ে সালিসে বসে। সেখানে প্রজারকান্দা গ্রামের আতাউরকে মারধর করে শান্তিপুরের লোকজন। এর জেরে আজ শনিবার সকাল নয়টার দিকে দু’পক্ষের অন্তত দুই হাজার লোক দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে বাজারের কাছে আন্ধাইর এলকায় সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।
উক্ত এলাকাটি হাওরের প্রত্যন্ত এলাকা হওয়ায় সেখানে পুলিশের ঠিম পৌঁছতে কিছুটা দেরি হয়। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। এবং স্থানীয়দের সহযোগিতায় আহতদের হবিগঞ্জ ও কিশোরগঞ্জ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ইটনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুর্শেদ জামান জানান, দুই গ্রামের বাসিন্দাদের পূর্ব বিরোধের জেরে এ সংঘর্ষ হয়। এতে দুজন নিহত হয়েছে। নিহতদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা আধুনিক হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হচ্ছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে উক্ত এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category