কিশোরগঞ্জ র‍্যাবের অভিযানে তিন লক্ষাধিক টাকা’সহ সরঞ্জাম উদ্ধার’ দন্ডিত ২৪ জুয়ারী

নিজস্ব প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার সাদকখালী এলাকা থেকে জুয়া খেলার নগদ
৩,৩৪,৪১০/-(তিন লক্ষ চৌত্রিশ হাজার চারশত দশ) টাকা, ২০(বিশ)টি নন পয়েন্টেড ডার্টস, ১০(দশ)টি কাঠের টুকরা, ০১(এক)টি
ওয়ান টু টেন বোর্ড, ০১(এক)টি ওয়ান টু টেন প্যানা এবং ০১(এক) বান্ডিল তাস’সহ ২৪(চব্বিশ) জন জুয়ারীকে আটক করেছে র‍্যাব-১৪ এর সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্প।

র‍্যাব-১৪, সিপিসি-২ এর কোম্পানী কমান্ডার, উপ-পরিচালক,লেঃ কমান্ডার (বিএন) এম শোভন খান জানান- র‍্যাব-১৪ এর দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় জুয়া খেলা সংক্রান্ত অপরাধ কর্মকান্ড দমনের লক্ষ্যে র‍্যাব ফোর্সেস অত্যন্ত পেশাদারিত্বের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার লক্ষ্যে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে।

এরই ধারাবাহিকতায় র‍্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্প গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, কমিরগঞ্জের সাদকখালী এলাকায় একটি পরিত্যক্ত ঘরের ভিতর কতিপয় কিছু লোক টাকার বিনিময়ে জুয়া খেলছে।
উক্ত তথ্যের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য র‍্যাবের গোয়েন্দা নজরদারী চালানো হয় এবং তথ্যের সত্যতা পাওয়ায় ২৬ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে ( ২৭ নভেম্বর রাত অনুমান ২.৩০ ঘটিকায়) উক্ত স্থানে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট অর্ণব দত্ত ও কোম্পানী কমান্ডার লেঃ কমান্ডার এম শোভন খানের নেতৃত্বে র‍্যাবের একটি আভিযানিক দল অভিযান চালিয়ে ১। মোঃ হাবিবুর রহমান(৫৫), পিতা-মোঃ আঃ হামিদ, সাং-আঠরোবাড়ি, থানা-
ইশ্বরগঞ্জ, জেলা- ময়মনসিংহ ২। ইয়াসিন(৩৯), পিতা-শাহজাহান, বাদুস্বর, থানা ও জেলা-বি-বাড়িয়া, ৩। নূরজ্জামান(৪৫), পিতা-নূরুল ইসলাম,
সাং-রথখলা, থানা ও জেলা-কিশোরগঞ্জ, ৪। সুহেল(৩২), পিতা-মৃত আবু তাহের, থানা-কটিয়াদি, জেলা-কিশোরগঞ্জ, ৫। আলম
(৩৫), পিতা- ওয়াসীম উদ্দিন, সাং-পুলেরঘাট, থানা ও জেলা-কিশোরগঞ্জ, ৬। আলাল (৪৫), পিতা-মৃত শাহ নেওয়াজ, সাং-ইশ্বরগঞ্জ, থানা-ইশ্বরগঞ্জ,
জেলা-ময়মনসিংহ, ৭। আবু সাঈদ (৬১), পিতা-মৃত আঃ বসির, সাং-নান্দাইল, থানা-নান্দাইল, জেলা-ময়মনসিংহ, ৮। লিটন দাস(৪৮), পিতা-মৃত
মনিন্দ্র চন্দ্র দাস, সাং-বাজিতপুর, থানা-বাজিতপুর, জেলা-কিশোরগঞ্জ ৯। মোঃ দুলাল মিয়া(৫২), পিতা-নূরুল ইসলাম, সাং-ধরগাও, থানা-নান্দাইল,
জেলা-ময়মনসিংহ, ১০। মোঃ শহিদুল ইসলাম (৪৮), পিতা-মৃত শামছুদ্দিন, সাং-বত্রিশ, থানা ও জেলা-কিশোরগঞ্জ, ১১। শাহজাহান (৫০), পিতা-মৃত
শফিকুর রহমান, সাং-তারাপাশা, থানা ও জেলা-কিশোরগঞ্জ, ১২। আবু বকর (৫৯), পিতা-মৃত নান্নু খা, সাং-সিদলারপাড়, থানা-করিমগঞ্জ, জেলা-
কিশোরগঞ্জ, ১৩। দ্বীন ইসলাম (৩০), পিতা-মোঃ আঃ রাজ্জাক, সাং-বাশহাটি, থানা-করিমগঞ্জ, জেলা-কিশোরগঞ্জ, ১৪। সুরুজ আলী (২৭), পিতা-মোঃ
শুক্কুর মাহমুদ, সাং-উত্তর পাড়া, থানা-করিমগঞ্জ, জেলা-কিশোরগঞ্জ, ১৫। নিজামউদ্দিন(৪৮), পিতা-মৃত আঃ মান্নান, সাং-দত্তপাড়া, থানা-ইশ্বরগঞ্জ,
জেলা-ময়মনসিংহ, ১৬। শহিদুল্লাহ (৬০), পিতা-মৃত সাহেদ আলী, সাং-নান্দাইল, থানা-নান্দাইল, জেলা-ময়মনসিংহ, ১৭। জিয়াউর রহমান(৪২),
পিতা-মৃত বাহার উদ্দিন, সাং-গন্দা, থানা-কেন্দুয়া,জেলা-নেত্রকোনা, ১৮। রফিকুল ইসলাম (৪০), পিতা-আফছার উদ্দিন, সাং-হোসেনপুর, থানা-
হোসেনপুর, জেলা-কিশোরগঞ্জ, ১৯। আতিক(৪৭), পিতা-মৃত আবু বকর, সাং-তারাপাশা, থানা ও জেলা-কিশোরগঞ্জ, ২০। আবু সাঈদ(৪৫), পিতা-
মৃত ইব্রাহিম, সাং-ধনাইল, থানা ও জেলা-কিশোরগঞ্জ, ২১। জুলহাস(৫০), পিতা-মৃত রুকনউদ্দিন, সাং-মহিনন্দ, থানা ও জেলা-কিশোরগঞ্জ, ২২।
গোলাম মিয়া (৫০), পিতা-মৃত মফিজ উদ্দিন, সাং-নোয়াকান্দি, থানা-করিমগঞ্জ, জেলা-কিশোরগঞ্জ ২৩। প্রিয়তোষ সরকার(৪৬), পিতা-মৃত প্রমোধ,
সাং-জেলা স্মরণী, থানা ও জেলা-কিশোরগঞ্জ ২৪। সুমন পাল(৩৮), পিতা-গোপাল পাল, সাং-ধনাইল, থানা ও জেলা-কিশোরগঞ্জ-দের’কে আটক করে এবং

জুয়া খেলার নগদ ৩,৩৪,৪১০/-(তিন লক্ষ চৌত্রিশ হাজার চারশত দশ) টাকা, ২০(বিশ)টি নন
পয়েন্টেড ডার্টস, ১০(দশ)টি কাঠের টুকরা, ০১(এক)টি ওয়ান টু টেন বোর্ড, ০১(এক)টি ওয়ান টু টেন প্যানা এবং ০১(এক) বান্ডিল তাস উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ও অনুসন্ধানে দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন এলাকায় টাকার বিনিময়ে জুয়া খেলে আসছিল বলে স্বীকার করায় তাৎক্ষণিকভাবে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে দোষী সাব্যস্ত করে ০১নং হতে ২২নং আসামীকে ২০(বিশ) দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং ২৩নং ও ২৪নং আসামীকে ১০০/-(একশত)
টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন জেলা প্রশাসকের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট অর্ণব দত্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *