চৌহালী উপজেলায় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ফকির জাহাঙ্গীর আলম

চৌহালী উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ঘোষণা ফকির জাহাঙ্গীর আলম

ফরহাদ চৌহালী সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার জনপ্রিয় চেনা মুখ বর্তমানে চৌহালী উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক ও চৌহালী অটোরিকশা, অটোটেম্পো ও সিএনজি শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি। ফকির মোঃ জাহাঙ্গীর আলম।

খাষকাউলিয়া পশ্চিম জোতপাড়া গ্রামে ১৯৭৭ সালে আওয়ামী মুসলিম পরিবারে মোল্লা বংশে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৯২ সালে খাষকাউলিয়া কে,আর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ১৯৯৪ সালে চোহালী ডিগ্রী কলেজ থেকে এইচএসসি ও ১৯৯৭ সালে একই কলেজ থেকে ডিগ্রি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন।

তিনি ১৯৯০ থেকে ছাত্র রাজনীতির সাথে জড়িয়ে পড়েন। সেই সময়ে প্রাথমিকভাবে ছাত্রলীগের সদস্য পদ গ্রহণ করেন। রাজনীতির মোহে একাধিকবার মৃত্যুর দারপ্রান্ত থেকেও ফিরে এসেছেন তিনি। সাথে মামলা হামলা আর পুলিশি নির্যাতন তো ছিলোই। নিশ্চিত মৃত্যু জেনেও তা পরোয়া কখনো করে নাই। সৈরাচার বিএনপির শাসনামলে ছিলো তার চোখে পড়ার মতো রাজপথে অবস্থান। ১৯৯৬ অবৈধ নির্বাচনে তার ভুমিকা ছিল অতুলনীয় সেই সময়ের এক দুঃসাহসীক আন্দোলন মিছিল আজও দাগ কাটে চৌহালী উপজেলা গন মানুষের মনে। তার সাহসীকতা আন্দোলনে চৌহালী উপজেলা গণ মানুষের প্রিয় মুখ হয়ে ওঠেন।

আজ বিকেলে শ্রমিক ইউনিয়ন হলরুমে এক জরুরি আলোচনা সভায় তিনি উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দেন‌। সেই সাথে সকলের কাছে দোয়া ও সমর্থন কামনা করেন।

চৌহালী উপজেলা জনসাধারণ মানুষের প্রত্যাশা পূরনে নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছেন ফকির মোঃ জাহাঙ্গীর আলম। তার পরিশ্রম, সাহস, ইচ্ছা শক্তি, একাগ্রতা, আর প্রতিভার সমন্বয়ে সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য, মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য সিরাজগঞ্জ-৫ (চৌহালী ও বেলকুচি) আসনের মাননীয় এমপি মহোদয় জনাব আলহাজ্ব আব্দুল মমিন মন্ডল এর সাথে একযোগে উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড সঠিক ও সুচারু ভাবে বাস্তবায়নের জন্য সর্বপরি বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশের যে স্বপ্ন রয়েছে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। সকলের সহযোগিতা পাচ্ছেন তিনি এবং সহযোগিতার আসা ব্যক্ত করে চলছেন।

উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রনেতা ফকির মোঃ জাহাঙ্গীর আলম তিনি চৌহালী উপজেলার সর্বত্র সম্মানিত হচ্ছেন। তারুণ্যের প্রতীক ব্যাক্তি তার বয়স ও অভিজ্ঞতা দুটিকেই হার মানিয়েছে। তার কর্মকান্ডে মনে হয় তিনি অনেক প্রবীন। তার অভিজ্ঞতা রয়েছে অনেক। চৌহালী উপজেলার সক্রিয় ত্যাগী নেতা ও তরুণ হিসাবে চৌহালী উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে তাকে দেখতে চায়।

তিনি দল মত নির্বিশেষে করোনা নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করার লক্ষে দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালিয়ে গেছেন। নিজের চিন্তা না করে চিন্তা করেছিলেন চৌহালী উপজেলাবাসীর জন্য। দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে তিনি সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মতবিনিময় সভাও করে আসছেন সেই সাথে খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন।

উপজেলাবাসীর সাধারণ মানুষের উন্নয়নে তার নিরন্তর প্রয়াস সব মহলে প্রশংসা কুড়িয়েছেন। তিনি উপজেলার আলোকিত মুখ হিসেবে পরিচিত। তিনি নিজের সাফল্যের কারণে বিভিন্ন সংগঠন কর্তৃক নানা ভাবে প্রশংসিত হয়েছেন। সামাজ সেবক হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন। ব্যাক্তি জীবনে তিনি অত্যান্ত নম্র ভদ্র, সদা হাস্যোজ্বল ও সাদা মনের মানুষ। তার মাঝে কোন প্রকার অহংকার নেই। নিরঅহংকারী এই মানুষটি দল মত নির্বিশেষে আজ সকলের কাছে প্রিয় ব্যাক্তি। কাজ করে যাচ্ছেন দল ও খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষের এবং কাজ করে যাচ্ছেন নৌকার জন্য। তিনি উপজেলাবাসীর কাছে একজন সাদা মনের উধার মানসিকতার ও দানশীল মানুষ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন।

ফকির মোঃ জাহাঙ্গীর আলম চৌহালী উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী হিসেবে সকলের নিকট দোয়া ও সমর্থন কামনা করছেন। সেই সাথে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ তথা জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে চৌহালীতে আওয়ামী যুবলীগ ও অন্যান্য সহযোগী সংগঠনসহ দলকে সুসংগঠিত করবেন বলে প্রত্যাশা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *