আজ ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১০ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে শিক্ষকের উপর হামলায় প্রতিবাদ সমাবেশ বিক্ষোভ ও স্মারকলিপি প্রদান

নিজস্ব  প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলার চরদেহুন্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামছুল হক ফরহাদের উপর সন্ত্রাসী হামলার বিচার দাবিতে ৪ নভেম্বর বেলা ১২ টায় করিমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেরর সামনে, প্রতিবাদ সমাবেশ, বিক্ষোভ ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেছে বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির করিমগঞ্জ উপজেলা শাখা।

প্রতিবাদ সমাবেশে করিমগঞ্জ উপজেলার সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকার উপস্থিতিতে, বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির করিমগঞ্জ উপজেলা শাখার সাধারন সম্পাদক মোঃ হাদিউল ইসলামের সভাপতিত্বে ও করিমগঞ্জ সরকারি মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহবুব আলমের সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন- জাতীয়করণকৃত শিক্ষক মহাজোটের কিশোরগঞ্জ জেলা শাখার আহ্বায়ক মোঃ মতিউর রহমান জাহাঙ্গীর, সাবেক সাধারন সম্পাদক মোঃ শরীফুল ইসলাম, খয়রত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আনোয়ার হোসেন, প্রধান শিক্ষক হাবিবুর রহমান হাবিব, কামরুল ইসলাম, হাবিবুল্লাহ্ প্রমূক।

বক্তাগন বলেন, বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি কিশোরগঞ্জ জেলার  সম্মানিত সিনিয়র সহ-সভাপতি করিমগঞ্জ উপজেলার সভাপতি ও চর দেহুন্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক  মোঃ শামসুল হক ফরহাদ ৩রা নভেম্বর অফিসিয়াল কাজে যান করিমগঞ্জ উপজেলা পরিষদের উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে।
শিক্ষা অফিসারের কার্যালয়ে বিকাল সাড়ে ৩ টার সময় কর্মকর্তা মহোদয়ের সাথে অফিসিয়াল কথা বলার এক পর্যায়ে নোয়াবাদ ইউনিয়নের কাজী তাজুল ইসলাম মারুফ কর্তৃক আকষ্মিকভাবে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত করেন
শিক্ষক  মোঃ শামসুল হক ফরহাদকে।
সরকারি অফিসে অফিস চলাকালীন সময়ে কর্মকর্তার অফিস কক্ষে হামলা করে একজন সম্মানিত জনপ্রিয় শিক্ষক নেতাকে রক্তাক্ত করার ঘটনা অমার্জনীয় অপরাধ এই সন্ত্রাসীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।  বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি কিশোরগঞ্জ জেলা ও কেন্দ্রিয় কমিটিও এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে সন্ত্রাসীকে দ্রুত গ্রেফতার করে কঠোর  আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে জোর দাবি জানায়। অন্যথায় আমরা সারাদেশের শিক্ষক সমাজ কঠোর থেকে কঠোরতম আন্দোলনে নামতে বাধ্য হবো।

আরো জানাযায়, সন্ত্রাসী তাজুল ইসলাম মারুফের স্ত্রী জেবুন্নাহারের অবৈধ শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে তাদের মধ্যে দীর্ঘদিনের বিরোধ চলে আসছিলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     More News Of This Category